দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তির উপায় কি? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

0 টি ভোট
209 বার দেখা হয়েছে
"মনোবিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (1,040 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (1,040 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
➤নিজেকে যথাসম্ভব রিলাক্সড রাখুন: অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা বা উদ্বেগে ভুক্তভোগী ব্যক্তির মন ও শরীর সব সময় 'টেনসন্ড' থাকে বলে শরীর ও মন যাতে রিলাক্সড থাকে, সেটা চেষ্টা করা উচিত।
নিয়মিত ব্যায়াম করুন অথবা প্রতিদিন অন্তত ৪০ মিনিট দ্রুত হাঁটুন। দেখবেন আপনার শরীর ও মন কিছুদিন পরে অনেক রিলাক্সড বা শান্ত বোধ করবেন।
প্রতিদিন অন্তত দুই থেকে তিনবার শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম করা যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে ধীরে ধীরে (৪-৫ সেকেন্ড ধরে) লম্বা করে পেট ভরে শ্বাস নিয়ে কিছুক্ষণ (৪-৫ সেকেন্ড) ধরে রেখে ধীরে ধীরে (৪-৫ সেকেন্ড ধরে) বের করে দিতে হবে। এ রকম ১০-১২ বার করবেন। এ সময় সম্পূর্ণ মনোযোগ আপনার শ্বাস-প্রশ্বাস বা শরীরের দিকে রাখুন। রিলাক্সেসনের জন্য এটা বিজ্ঞানসম্মত একটা চমৎকার ও সহজ পদ্ধতি।

➤দুশ্চিন্তাকে প্রশ্রয় না: যেকোনো নেতিবাচক চিন্তা বা দুশ্চিন্তা একবার মাথায় ঢুকলে সেগুলো আরও নেতিবাচক চিন্তা মাথায় আনে, যা শেষ পর্যন্ত হতোদ্যম করা ছাড়া কিছুই করে না। কাজেই প্রথম থেকেই কোনো নেতিবাচক চিন্তা এলে সেটা নিয়ে না ভেবে মন সঙ্গে সঙ্গে অন্যদিকে সরিয়ে ফেলুন বা নিজেকে অন্য কাজে নিয়োজিত করুন (যেসব কাজে আপনার মনোযোগ লাগবে)। গুনগুন করে গান গাওয়া বা শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম এ ক্ষেত্রে খুব সাহায্য হতে পারে।

➤সামাজিক মেলামেশা বাড়া: দুশ্চিন্তা, অশান্তি, অস্থিরতা, মন খারাপ কমানোর অন্যতম উপায় হলো সামাজিক মেলামেশা বাড়ানো। দেখা যায়, যাঁদের বন্ধুবান্ধব বেশি বা নানা ধরনের মানুষের সঙ্গে সংযোগ রয়েছে, তাঁদের মানসিক স্বাস্থ্য তুলনামূলকভাবে ভালো থাকে। আপনার চারপাশের অনেক শুভাকাঙ্ক্ষী বা বন্ধুবান্ধব, সজ্জন ব্যক্তিদের দ্বারা মানসিকভাবে যুক্ত আছেন-এই বোধ আপনাকে মানসিকভাবে অনেক ভালো রাখবে। তবে সেটা যেন ফেসবুক বা সোশ্যাল মিডিয়ায় সীমাবদ্ধ না হয়। কাজেই মাঝেমধ্যে সপ্তাহের কাজের ভিড়ে কিছুটা সময় রাখুন বন্ধু-আত্মীয়-প্রতিবেশীর সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন আড্ডা বা সময় কাটানোর জন্য।

➤নিজের জন্য প্রতিদিন কিছু সময় রাখুন: প্রতিদিন খুব অল্প সময় হলেও নিজের জন্য কিছু সময় রাখুন। এ সময়টায় করার জন্য না করে বা দায়িত্বের জন্য না করে আপনার যেভাবে ভালো লাগে সেভাবে কাটান অথবা ভালো লাগার কোনো কাজ করুন।

➤গ্রহণযোগ্যতা বাড়া: জীবনের নানা কিছু, সেটা সন্তানের পড়াশোনা, বাসার গৃহকর্মীর কাজ, জীবনসঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্ক, অথবা যেকোনো কিছু, সব কিন্তু আপনার চাহিদা বা প্রত্যাশার মতো হবে না। অনেক কিছু পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নানা 'না' পাওয়াও থাকবে। কাজেই আপনার মনকে যদি ছোটখাটো ব্যর্থতা গ্রহণ করার জন্য প্রস্তুত করতে পারেন, তাহলে অনেক কিছুই দেখবেন সহজ হয়ে যাবে।

সেই সঙ্গে প্রতিনিয়ত যদি আপনার জীবনের ইতিবাচক দিকগুলোর (সেটা আপাতভাবে যত ছোটই মনে হোক না কেন) দিকে মনোযোগ দেন, তাহলে একরকম মানসিক শক্তি পাবেন। একটু মনোযোগ দিলে দেখবেন, প্রতিদিনই ছোটখাটো অনেক কিছুই ভালোভাবে ঘটছে, অথবা দিন শেষে অনেক ভালো মুহূর্তই জমা হচ্ছে আপনার কোটায়। সুতরাং মনোযোগী হোন আপনার জীবনের ইতিবাচক বিষয়ের প্রতি এবং নিজের বা অন্যদের ব্যর্থতা বা ছোটখাটো ভুলত্রুটি যথাসম্ভব উপেক্ষা করুন। সেই সঙ্গে ভালোবাসুন নিজেকে। মনে রাখবেন, নিজেকে ভালো রাখতে পারলেই ভালোবাসার মানুষদের জন্য যখন কিছু করবেন, সেটা গুণগত দিক দিয়েও উৎকর্ষ হবে।

তথ্যসূত্রঃপ্রথম আলো।
0 টি ভোট
করেছেন (7,790 পয়েন্ট)

দুশ্চিন্তা একটি স্বাভাবিক মানসিক প্রতিক্রিয়া। তবে, অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পেতে নিম্নলিখিত উপায়গুলি অনুসরণ করা যেতে পারে:

  • দুশ্চিন্তার কারণ চিহ্নিত করুন। আপনি কী কারণে দুশ্চিন্তা করছেন তা বুঝতে পারলে, সেই কারণগুলি দূর করার জন্য পদক্ষেপ নেওয়া সহজ হবে।
  • আপনার চিন্তাভাবনাকে নিয়ন্ত্রণ করুন। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পেতে, আপনার চিন্তাভাবনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে শিখুন। যখন আপনি দুশ্চিন্তা করতে শুরু করেন, তখন আপনার চিন্তাভাবনাকে বাস্তবসম্মত দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করুন।
  • শারীরিক কার্যকলাপ করুন। নিয়মিত শারীরিক কার্যকলাপ দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করতে পারে। এটি শরীর এবং মনকে শান্ত করতে সাহায্য করে।
  • পর্যাপ্ত ঘুমান। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে দুশ্চিন্তা বেড়ে যেতে পারে। তাই প্রতি রাতে কমপক্ষে ৭-৮ ঘন্টা ঘুমান।
  • স্বাস্থ্যকর খাবার খান। স্বাস্থ্যকর খাবার খেলে মন ভালো থাকে এবং দুশ্চিন্তা কমে।
  • ধ্যান বা যোগব্যায়াম করুন। ধ্যান বা যোগব্যায়াম দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করতে পারে। এটি শরীর এবং মনকে শান্ত করতে সাহায্য করে।
  • আপনার প্রিয়জনদের সাথে কথা বলুন। আপনার দুশ্চিন্তা প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন। তারা আপনাকে সমর্থন দিতে এবং আপনার দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করতে পারে।

যদি উপরের উপায়গুলি অনুসরণ করার পরেও আপনার দুশ্চিন্তা কমে না, তাহলে একজন মানসিক স্বাস্থ্য পেশাদারের সাথে পরামর্শ করুন। তারা আপনাকে দুশ্চিন্তা মোকাবেলায় সাহায্য করতে পারে।

এখানে কিছু নির্দিষ্ট কার্যকলাপের উদাহরণ দেওয়া হল যা দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করতে পারে:

  • ধ্যান: ধ্যান একটি প্রাচীন অনুশীলন যা শরীর এবং মনকে শান্ত করতে সাহায্য করে। ধ্যান করার সময়, আপনি আপনার চিন্তাভাবনাকে কেন্দ্রীভূত করেন এবং আপনার শ্বাস-প্রশ্বাসের উপর মনোযোগ দেন।
  • যোগব্যায়াম: যোগব্যায়াম একটি শারীরিক এবং মানসিক অনুশীলন যা শরীর এবং মনকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। যোগব্যায়ামের বিভিন্ন আসন রয়েছে যা দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করতে পারে।
  • গভীর শ্বাস-প্রশ্বাস: গভীর শ্বাস-প্রশ্বাস দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করতে পারে। গভীর শ্বাস-প্রশ্বাসের সময়, আপনি আপনার নাক দিয়ে ধীরে ধীরে শ্বাস নেন এবং আপনার বুক এবং পেট ফুলতে দেন। তারপর, আপনি ধীরে ধীরে আপনার মুখ দিয়ে শ্বাস ছাড়েন।
  • মাংসপেশী শিথিলকরণ: মাংসপেশী শিথিলকরণ একটি কার্যকলাপ যা আপনার শরীরের বিভিন্ন অংশের পেশীগুলিকে শিথিল করতে সাহায্য করে। মাংসপেশী শিথিলকরণ করার সময়, আপনি আপনার শরীরের একটি অংশে মনোযোগ দেন এবং সেই অংশের পেশীগুলিকে শিথিল করার চেষ্টা করেন।
  • ইমপ্রোভাইজেশন: ইমপ্রোভাইজেশন একটি সৃজনশীল কার্যকলাপ যা আপনাকে আপনার মনকে বর্তমান মুহূর্তে নিয়ে আসতে সাহায্য করতে পারে। ইমপ্রোভাইজেশন করার সময়, আপনি কোন পূর্ব পরিকল্পনা ছাড়াই কিছু তৈরি করেন।

আপনার জন্য কোন কার্যকলাপটি সবচেয়ে কার্যকর হবে তা পরীক্ষা করে দেখুন। বিভিন্ন কার্যকলাপ চেষ্টা করে দেখুন এবং দেখুন কোনটি আপনাকে সবচেয়ে বেশি শান্তি দেয়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর 90 বার দেখা হয়েছে
+8 টি ভোট
2 টি উত্তর 260 বার দেখা হয়েছে
+3 টি ভোট
2 টি উত্তর 623 বার দেখা হয়েছে
21 ফেব্রুয়ারি 2021 "মনোবিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নোশিন মাহি (7,940 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
2 টি উত্তর 180 বার দেখা হয়েছে
07 ডিসেম্বর 2023 "মনোবিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Jihan (1,040 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
3 টি উত্তর 841 বার দেখা হয়েছে
07 মে 2022 "চিন্তা ও দক্ষতা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Anupom (15,280 পয়েন্ট)

10,750 টি প্রশ্ন

18,409 টি উত্তর

4,732 টি মন্তব্য

244,528 জন সদস্য

28 জন অনলাইনে রয়েছে
0 জন সদস্য এবং 28 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. MIS

    1390 পয়েন্ট

  2. shuvosheikh

    420 পয়েন্ট

  3. তানভীর রহমান ইমন

    160 পয়েন্ট

  4. unfortunately

    130 পয়েন্ট

  5. Muhammad_Alif

    130 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো #ask মোবাইল ক্ষতি চুল কী চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য #science প্রযুক্তি স্বাস্থ্য প্রাণী বৈজ্ঞানিক মাথা গণিত মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি #biology বিজ্ঞান খাওয়া গরম শীতকাল #জানতে কেন ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ ঠাণ্ডা মস্তিষ্ক শব্দ ব্যাথা ভয় বাতাস স্বপ্ন তাপমাত্রা গ্রহ রসায়ন উদ্ভিদ কালো পা কি বিস্তারিত রঙ মন পাখি গ্যাস সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম হরমোন বাংলাদেশ বিড়াল
...